বন্দুকধারীর হামলায় যুক্তরাষ্ট্রের লুইস্টনে নিহত ২২

প্রকাশিত: ৬:১৩ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৬, ২০২৩

বন্দুকধারীর হামলায় যুক্তরাষ্ট্রের লুইস্টনে নিহত ২২

যুক্তরাষ্ট্রের মেইন রাজ্যের লুইস্টন শহরের কয়েকটি স্থানে বন্দুকধারীদের এলোপাতাড়ি গুলিতে অন্তত ২২ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৫০ থেকে ৬০ জন।

বুধবার (২৫ অক্টোবর) স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটের দিকে প্রথম গোলাগুলিল ঘটনা ঘটে।

প্রথম ঘটনার ঠিক এক ঘণ্টা পর রাত ৮টা ১৫ মিনিরে একই শহরের ওয়ালমার্টের একটি বিপণন কেন্দ্রেও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে।

লুইস্টন পুলিশের মুখপাত্র বলেছেন, একটি বার, রেস্তোরাঁ, ওয়ালমার্টের বিতরণকেন্দ্র ও ব্যবসায়িক কেন্দ্রে হামলা হয়েছে।

বন্দুকধারী দুইজন বলে অনুমান করা হচ্ছে। এখনো কাউকে আটক করা যায়নি।

পুলিশ তার আগে অজ্ঞাত এক সন্দেহভাজনের তিনটি ছবি প্রকাশ করে। যে ছবিতে ওই ব্যক্তিকে একটি আধা-স্বয়ংক্রিয় রাইফেল তাক করে থাকতে দেখা যায়। অন্য একটি ছবিতে একটি সাদা রঙের এসইউভি। ওই ছবিগুলো প্রকাশ করে পুলিশ জনগণের কাছে ওই ব্যক্তি বা গাড়িটি সনাক্তে সহায়তা চায়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লুইস্টন পুলিশ বোলিং অ্যালে ও বারে হামলায় জড়িত সন্দেহে রবার্ট কার্ড নামে ৪০ বছরের এক ব্যক্তিকে চিহ্নিত করেছে এবং বলেছে, ‘ওই ব্যক্তি সশস্ত্র এবং বিপজ্জক। তার থেকে দূরে থাকা উচিত’।

লুইস্টন পুলিশ জানায়, তাদের কর্মকর্তারা দুইটি জায়গায় কাজ করছেন। একটি রেস্তোরাঁ, যেটির নাম স্কিমেনজিস এবং স্পেয়ারটাইম রিক্রিয়েশন নামে একটি বোলিং অ্যালে। ওই দুই স্থানের মধ্যে দূরত্ব প্রায় সাড়ে ৬ কিলোমিটার। গাড়িতে যেতে সময় লাগে ১০ মিনিটের মত।

হামলায় হতাহতদের বেশিরভাগকে সেন্ট্রাল মেইন মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানান, তারা ‘গণ হত্যা, গণ বন্দুক হামলার’ ঘটনা মোকাবেলা করছেন এবং আহতদের চিকিৎসায় ওই এলাকার অন্যান্য হাসপাতালের সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করছেন।

এ ঘটনার পর লুইস্টনে বৃহস্পতিবার সব স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

মেইন অঙ্গরাজ্যের পুলিশ ও কাউন্টি শেরিফ এর আগের দিন মঙ্গলবার (২৪ অক্টোবর) রাতে দুইজন বন্দুকধারীর সক্রিয় অবস্থানের কথা জানিয়েছিলেন। তবে এ নিয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি।