কেউ নির্বাচনে এলো কিনা, আ.লীগের কিছু যায় আসে না : সিলেটে নানক

প্রকাশিত: ৪:৪৯ পূর্বাহ্ণ, মে ২১, ২০২৩

কেউ নির্বাচনে এলো কিনা, আ.লীগের কিছু যায় আসে না : সিলেটে নানক

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, অলিকুল শিরোমণি হযরত শাহজালাল (রঃ) ও হযরত শাহপরান (রঃ) এর পূণ্যভূমির দিকে তাকিয়ে আছে দেশ ও বহির্বিশ্বের মানুষ। জনশ্রুতি আছে সিলেটের সুবাতাস যেদিকে ছড়ায় সেদিকেই সুফল বয়ে আসে। নেতা কর্মীদের উদ্দেশ্যে নানক আরও বলেন, মনে রাখবেন আমরা ভোট যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছি। অতীতের তিক্ত অভিজ্ঞতার নির্যাস সঞ্চয় করে, মানুষের মন জয় করেই আমরা জয় নিয়ে ঘরে ফিরতে চাই। তিনি বলেন, অন্য অনেক সময়ের চেয়ে সিলেটে আওয়ামীলীগ পরিবার আজ ইস্পাত কঠিন ঐক্যবদ্ধ, উজ্জীবিত।

সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের মেয়র পদপ্রার্থী মোঃ আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর সমর্থনে পূর্বাঞ্চলের ৯টি ওয়ার্ড ও ৩৬টি সেন্টার কমিটির নেতা কর্মীদের সাথে এক যৌথ মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

জাহাঙ্গীর কবির নানক আরো বলেন, কে নির্বাচনে এলো আর কে এলো না এটা নিয়ে আওয়ামী লীগ চিন্তিত নয়। নির্বাচন হলো জনপ্রিয়তার মাপকাঠি, দলের জনসম্পৃক্ততা থাকলে নির্বাচনে ভয় পাওয়ার কোন কারণ নেই। আওয়ামী জনগণের রাজনীতি করে। তাই, নির্বাচনে ভয় করে না।

তিনি বলেন, আমাদের এই উজ্জীবনী শক্তি দেখে অনেকের মাথা খারাপ হয়ে গেছে, অনেকে পরাজয়ের আশংকায় রণে ভঙ্গ দিতে শুরু করেছেন। সাবেক মন্ত্রী নানক বলেন, সিলেটে অন্য দলের মেয়র থাকার পরও প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা হাজার হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন। একটি বারের জন্য সেই মেয়র ন্যূনতম কৃতজ্ঞতা স্বীকার করেননি। সিলেটের ভয়াবহ বন্যায় জননেত্রী ছুটে এসে বানভাসি মানুষের দুঃখ-দুর্দশা ভাগাভাগি করেছেন। তাই, দেশ পরিচালনার জন্য মানুষ আবার তাঁকেই চায়। তিনি সিলেটে শান্তির সুবাতাস বইতে দিতে, তিলোত্তমা নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে সৎ, কর্মঠ, নির্ভীক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীকে নির্বাচিত করতে সকলের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।

সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো চেয়ারম্যান ও পূর্বাঞ্চলের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা শফিকুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট রণজিত সরকারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেছা হক বলেন, নগরীকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন, মশক মুক্ত উন্নত নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে আনোয়ারুজ্জামানকে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীকে বিজয়ী করতে পারলে উন্নয়নের জন্য কারো কাছে তদবির করতে হবে না। তিনি জানেন কোথায় থেকে কাজ আদায় করতে হয়, তিনি কাজের মানুষ।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আহমদ হোসেন বলেন, প্রয়াত মেয়র নন্দিত জননেতা বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের পরাজয়ের গ্লানি থেকে শক্তি আহরণ করে এবারের নির্বাচনে আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীকে বিজয়ী করতে হবে। তিনি বলেন, মনে রাখবেন আওয়ামীলীগ জিতলে গণমানুষের বিজয় নিশ্চিত হয়; আর অন্য কেউ জিতলে গোটা কয়েক ব্যক্তি জিতে। দলীয়করণ আত্মীয়করণ হয়। আজ থেকে নির্বাচনের চূড়ান্ত বিজয় অর্জন না হওয়া পর্যন্ত ক্লান্তিহীন গণসংযোগ চালিয়ে যাওয়ার জন্য আহমদ হোসেন নেতা -কর্মীদের প্রতি আহবান জানান।

সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসূক উদ্দিন আহমদ, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-সদস্য সচিব এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান, মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো -সদস্য সচিব অধ্যাপক জাকির হোসেন, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মিসবাউর রহমান। বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মোঃ সানাওর, জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক জগলু চৌধুরী, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এড. আব্বাস উদ্দিন, মহানগর আওয়ামীলীগের সদস্য ওয়াহিদুর রহমান ওয়াহিদ, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এড. সালমা সুলতানা, মহানগর মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আসমা কামরান, শ্রমিকলীগের জেলা সভাপতি প্রকৌশলী এজাজুল হক এজাজ, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক দেবাংশু দাশ মিঠু, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নাজমুল ইসলাম। ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন লিটন আহমদ, ইসমাইল মাহমুদ সুজন, ফয়ছল আক্তার সোবহানী, আব্দুস সামাদ, নাজমুল ইসলাম, আব্দুল খালিক, আবুল কালাম পাটোয়ারী, ওয়াহিদুর রহমান, রমিজ উদ্দিন বাবুল প্রমুখ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ