তুরস্কের নির্বাচন: কঠিন পরীক্ষার মুখে এরদোয়ান

প্রকাশিত: ৫:৫২ পূর্বাহ্ণ, মে ১৪, ২০২৩

তুরস্কের নির্বাচন: কঠিন পরীক্ষার মুখে এরদোয়ান

তুরস্কে আজ (১৪ মে) প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচন হতে যাচ্ছে। স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হবে। শেষ হবে বিকেল ৫টায়।

২০ বছর ধরে দেশটির ক্ষমতায় আছেন রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। নির্বাচনে এরদোয়ানসহ প্রেসিডেন্ট প্রার্থী মোট তিন জন। বাকি দুইজন হলেন- কামাল কিলিচদারোগলু ও সিনান ওগান।

এবারের নির্বাচনে ভোট দেবেন প্রায় সাড়ে ৬ কোটি তুর্কি নাগরিক। তিন প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর মধ্য থেকে একজনকে বেছে নেবেন তারা। নির্বাচনে মোট ২৪টি রাজনৈতিক দল অংশ নিয়েছে। পার্লামেন্টের ৬০০ আসনের বিপরীতে লড়াই করছেন ১৫১ স্বাধীন প্রার্থী। খবর বিবিসি।

তুরস্কের প্রবল ক্ষমতাধর প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের জন্য রোববারের নির্বাচন হতে যাচ্ছে তার রাজনৈতিক জীবনের সবচেয়ে বড় লড়াই। কারণ এবার তাকে মোকাবিলা করতে একজোট হয়েছে বিরোধী সবগুলো দল।

এরদোয়ানের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী কেমাল কিলিচদারুলু গত শুক্রবার তার সমর্থকদের সঙ্গে সমাবেশে হাজির হন। সে সময় তার দুই পাশে ছিলেন সেদেশের অনেকগুলো রাজনৈতিক দল থেকে আসা মিত্ররা। তুরস্কের রাজনীতিতে অনেকদিন এমনটা ঘটেনি।

একাধিক জনমত জরিপ বলছে, কামাল কিলিচদারোগলুর বয়স এখন ৭৪। তাকে একজন মৃদুভাষী লোক হিসেবেই মনে করা হয়।

‘তুরস্কের গান্ধী’খ্যাত কামাল ২০ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা এরদোয়ানকে ক্ষমতাচ্যুত করে দিতে পারেন। কিলিচদারোগলুর সমর্থকরা মনে করছেন, গত দুই দশক ধরে এরদোয়ান পার্লামেন্টের পরিবর্তে নিজের হাতে ক্ষমতা কুক্ষিগত করেছেন। সেই ক্ষমতা কেড়ে নেয়ার জন্য এবারই সবচেয়ে বড় সুযোগ।

কূটনীতিক থেকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নেয়া কামাল দাবি করেন, এরদোয়ান তার নিজ স্বার্থ হাসিলে পার্লামেন্টের ক্ষমতা কমিয়েছেন। তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে পার্লামেন্টের পুরোনো ক্ষমতা ফিরিয়ে দেবেন।

এস এ