ভ্রাম্যমাণ আদালত জেরা করায় মৌলভীবাজারে বাইকে আগুন

প্রকাশিত: ৭:২৬ পূর্বাহ্ণ, মে ৮, ২০২৩

ভ্রাম্যমাণ আদালত জেরা করায় মৌলভীবাজারে বাইকে আগুন

মৌলভীবাজার শহরতলীর জগন্নাথপুর এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে বৈধ কাগজপত্র দেখতে চাইলে ক্ষোভে নিজের মোটরসাইকেলে আগুন লাগিয়ে দেন এক যুবক।

রোববার ৭ মে দুপুরে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খাদিজা তাহিরা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে এই ঘটনা ঘটে। এ সময় মোটরসাইকেল চালক মামুন আহমদ নিজের মোটরসাইকেলে আগুন দেওয়ার দৃশ্য ভিডিও করে তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করেন।

মামুন আহমদ বলেন, গতকাল আমি মোটরসাইকেলের কাজের জন্য ওয়ার্কশপে নিয়ে যাই। কিছু কাজ করার পর রাতে মোটরসাইকেল নিয়ে বাড়ি চলে আসি। আজ দুপুরে বাড়ি থেকে পাম্পে এসে মোটরসাইকেলের তেল কিনে আবার ওয়ার্কশপে যাওয়ার পথে ভ্রাম্যমাণ আদালত আমাকে আটক করে। তখন মামুন মোটরসাইকেলের কাগজসহ সকল কিছু আছে এবং সেগুলো ওয়ার্কশপে রাখা আছে বলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের সাথে থাকা পুলিশ কে জানায়।

এ সময় তারা সাদা কাগজে স্বাক্ষর করতে বলেন। এসময় মামুন সাদা কাগজে স্বাক্ষর করেননি। পরে নাম-ঠিকানা লিখে স্বাক্ষর করার জন্য বলেন। আমি তাতেও স্বাক্ষর করিনি। একপর্যায়ে স্বাক্ষর করার জন্য আমাকে জোর করে স্বাক্ষর নেয়ার চেষ্টা করেন।

এসময় তিনি ক্ষোভে নিজ মোটর বাইকে আগুন লাগিয়ে দেন। এ বিষয়ে জানতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খাদিজা তাহিরার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

মৌলভীবাজার মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুনুর রশীদ চৌধুরী বলেন, শ্রীমঙ্গল সড়কে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেছেন। এক মোটরসাইকেল চালককে জেরা করায় সে নিজের বাইকে নিজেই আগুন ধরিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। পরে পুলিশ আগুন নিভিয়ে মোটরসাইকেলটি জব্দ করে থানায় নিয়ে আসে।