হাসপাতালে ভর্তি পোপ ফ্রান্সিস

প্রকাশিত: ৫:৪৫ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ৩০, ২০২৩

হাসপাতালে ভর্তি পোপ ফ্রান্সিস

শ্বাসযন্ত্রের সংক্রমণ ও শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস। ভ্যাটিকান সিটি বুধবার (২৯ মার্চ) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, চিকিৎসার জন্য পোপকে ‘কয়েকদিন’ হাসপাতালে কাটাতে হবে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, পোপ ফ্রান্সিস বেশ কিছুদিন ধরেই শ্বাসকষ্টের সমস্যার কথা বলছিলেন। এরপর তার করোনা পরীক্ষা করা হয়। কিন্তু পরীক্ষায় তার করোনা ধরা পড়েনি।

ফ্রান্সিসকে হঠাৎ করেই বুধবার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এর ফলে অনেকে চিন্তিত হয়ে পড়েন। পরবর্তীতে বিবৃতিতে জানানো হয়, চিকিৎসার জন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি থাকতে হবে। যদিও প্রথমে ভ্যাটিকান সিটি জানিয়েছিল, পোপ ফ্রান্সিস রুটিন চেক আপের জন্য হাসপাতালে গেছেন। কিন্তু ইতালিয়ান সংবাদমাধ্যমগুলো এ নিয়ে প্রশ্ন তোলে। কারণ বুধবার ফ্রান্সিসের একটি টিভি সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠানে যুক্ত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে অনুষ্ঠানটি বাতিল করা হয়।

এর আগে বুধবার সকালেই ভ্যাটিকানে পোপ সাপ্তাহিক সাধারণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন। ওই সময় তাকে সুস্থই দেখা যায়।

পোপ ফ্রান্সিসের অবশ্য আগে থেকেই শ্বাসকষ্টের সমস্যা ছিল। মাত্র ২০ বছর বয়সে তার ফুসফুসের একটি অংশ ফেলে দিতে হয়। ওই সময় পাদ্রি হওয়ার জন্য নিজ দেশ আর্জেন্টিনায় দীক্ষা নিচ্ছিলেন তিনি। ফুসফুসে অপারেশনের কারণে অল্পতেই তিনি শ্বাসজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে যান।

তবে ফ্রান্সিস এবার এমন সময় অসুস্থ হলেন যখন তাকে ইস্টার সানডে উপলক্ষ্যে ব্যস্ত থাকতে হবে। তবে তিনি ইস্টার সানডের কার্যক্রমে যোগ দিতে পারবেন কিনা এ নিয়ে সন্দেহ তৈরি হয়েছে।

পোপ ফ্রান্সিস ২০১৩ সাল থেকে ভ্যাটিকান সিটির পোপের দায়িত্বে আছেন। তিনি জানিয়েছেন, স্বাস্থ্য খুব বেশি খারাপ না হয়ে গেলে এ দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়াবেন না।

এস এ